মুসা (আঃ)

একটু অন্য রকম গল্প, হযরত মুসা (আঃ) একজন নবী ও রাসুল ছিলেন। তিনি কিছুটা একরোখা টাইপের ছিলেন। একবার মাথায় কিছু ঢুকলে সেটার শেষ দেখে ছাড়তেন এবং তিনিই একমাত্র রাসুল যিনি আল্লাহ্র সাথে সরাসরি কথা বলতেন। অন্য নবী রাসুলরা পারতেন না এমনকি হযরত মোহাম্মদ (সঃ) না। একদিন মুসা আঃ আল্লাহকে জিজ্ঞাসা করলেন-
– হে আল্লাহ্, আমার একটি প্রশ্নের উত্তর জানতে ইচ্ছা করে…
– (আল্লাহ্ বলেন) মুসা, তুমি কি জানতে চাও?
– আমি যখন বেহস্তে প্রবেশ করবো, তখন আমার সাথে আর কেউ কি প্রবেশ করবে?
– (আল্লাহ্ বলেন) আর মাত্র একজনকে আমি সেই মর্যাদা দিয়েছি।
– কে সেই ব্যাক্তি?
– (আল্লাহ্ বলেন) মুসা, তুমি তার নাম জানতে চেওনা।
– হে আল্লাহ্, অবশ্যই আমি জানতে চাই… কে এই মর্যাদা সম্পন্ন লোক।
– (আল্লাহ্ বলেন) মুসা, তুমি শুনলে কষ্ট পেতে পারো, শুনতে চেওনা…।
– কষ্ট পেলে পাবো, আপনি তার নাম বলুন।
– (আল্লাহ্ বলেন) মিশরের একজন মুচি কে আমি এই মর্যাদা দান করেছি, তার নাম…..
মুসা ক্ষান্ত দেয়ার মতো নবী ছিলেন না, ঠিক কি কারনে একজন মুচিকে এই মর্যাদা দান করলেন তা জানার উদ্দেশে বেড়িয়ে পড়লেন মুচির খোঁজে। তিনি মুচিকে খুঁজে বের করলেন, চরম দরিদ্র একজন লোক, শতছিন্ন বস্ত্র গায়ে, রাস্তার পাশে বসে নিচু হয়ে জুতা সেলাই করছে। মুসা সারাদিন দূর থেকে লোকটিকে পর্যবেক্ষণ করলেন, কিন্তু বিশেষ কিছুই বুঝলেন না। সন্ধ্যা ঘনিয়ে আসছে, মুসা কিছুটা হতাশ।
মুসা লোকটির কাছে এগিয়ে গেল এবং বলল, “আমি এই শহরে নতুন, রাত্রি যাপনের কোন উপায় নেই, আপনি কি আমাকে রাতের জন্য আশ্রয় দিতে পারবেন”? লোকটি মুসার দিকে তাকাল এবং বলল, ” আমার একটি মাত্র ঘর, বৃদ্ধ মা ঘরে থাকেন, আমার সাথে আপনাকে বারান্দায় থাকতে হবে”। মুসা বলল তার কোন অসুবিধা নেই। লোকটি পুনরায় বলল, “আজকে আমার তেমন রোজগার হয়নি, আমার সাথে আপনাকেও না খেয়ে থাকতে হবে”। মুসা তাতেও রাজী হয়ে গেল। তারপর মুচি লোকটি সামান্য পরিমান দুধ কিনে মুসাকে সাথে নিয়ে বাড়ী চলে গেল।
বারান্দায় লোকটি ঘুমিয়ে আছে, পাশেই মুসা জেগে বসে আছে। ঘুমিয়ে পরার আগে লোকটি একটি পাত্রে দুধ ঢেলে বৃদ্ধা মায়ের কাছে রেখে এসেছে খাওয়ার জন্য। মুসা মন খারাপ করে বসে আছেন, মুচি লোকটার ভিতরে তিনি বিশেষ কিছু দেখতে পাচ্ছেন না। অনেকক্ষণ পরে মুসা ঘরের ভিতরে বৃদ্ধার দুধ পান করার শব্দ পেলেন, পান শেষে বৃদ্ধা শব্দ করে কিছু একটা বলছেন। মুসা শোনার জন্য কান পাতলেন এবং শুনতে পেলেন বৃদ্ধা দোয়া করছে—- “হে আল্লাহ্, আমার ছেলেকে তুমি নবী মুসার সাথে বেহেশতে প্রবেশ করার মর্যাদা দিও”।
মুসা শুনলেন এবং স্তব্ধ হয়ে গেলেন।
কিছু সময় পরে মুসা ধীরে ধীরে বৃদ্ধার সামনে উপস্থিত হলেন এবং বললেন, “হে মা, আজকের পর থেকে তোমাকে আর এই দোয়া করতে হবে না”। বৃদ্ধা মুখ তুলে তাকিয়ে জিজ্ঞাস করলো, “কেন”? মুসা বললেন, “তোমার দোয়া ইতিমধ্যে আল্লাহ্ কবুল করেছেন”।
বৃদ্ধা পুনরায় জিজ্ঞেস করলেন,”তুমি কি করে জানতে পারলে?”
মুসা কেঁদে দিয়ে বললেন, “হে মা, আমিই সেই মুসা……… এবং আল্লাহ্ আমাকে নিজ মুখে এই সুসংবাদ দিয়েছেন”।
অতঃপর মুসা ধীরে ধীরে সেই গৃহ ত্যাগ করলেন, মুচিটি তখনও ঘুমিয়ে ছিল।

Collected

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: