ভালো কাজ ও সন্তুষ্টি

ভালো ভালো কাজ করার পর আমাদের মনে স্বাভাবিকভাবেই অনেক উদ্যম আসে। এটা খারাপ না। তবে নিজের সম্পর্কে অতিমাত্রায় সুধারণা পোষণ করে ফেলা, বা নিজেকে অন্য একজন সাধারণ মানুষের চেয়ে বেশি ভালো ভেবে ফেলা বা মনে মনে সন্তুষ্টির বীজটি পাকাপোক্তভাবে বপন করে ফেললে কিন্তু সমস্যা। ইংরেজিতে এই সমস্যাটাকে বলা যেতে পারে Superiority Complex. জানছিলাম সূরা বাকারার ১২৮ নম্বর আয়াত সম্পর্কে যেখানে নবী ইবরাহীম (আ) পবিত্র কাবা শরীফ নির্মাণের কাজটি শেষ করে দু’আ করছিলেন অত্যন্ত বিনীতভাবে, ক্ষমা প্রার্থনা করছিলেন যদি কোন ভুল থেকে থাকে।

একজন নবী যদি কাবা তৈরির মত শ্রেষ্ঠ ও মহৎ কাজটি করে শংকিত থাকেন কোন ভুলত্রুটি হয়ে গেল কিনা, আল্লাহর কাছে কাজটি গ্রহণযোগ্য হল কিনা ইত্যাদি…তাহলে আমরা দুইটা ভালো কাজ করে নিজেদের সীমাবদ্ধতা/পাপ ভুলে আল্লাহর কাছে মহৎ বান্দা হয়ে গেছি ভেবে overconfident হয়ে যাই, সেটা একটু দুঃসাহসই বটে! আমাদেরও কি এভাবেই সবসময় দু’আ করা এবং submissive থাকা উচিত না ? সুবহানাল্লাহ, এই আয়াতের অর্থ বুঝে আত্মাটা কেঁপে উঠল। নিজের ব্যাপারে সতর্ক হলাম। এমন কিন্তু আমাদের সবারই কোন না কোন সময় হয়েছে কোন ইতিবাচক/ভালো কাজ করার পর।

Courtesy: Face book Page ইসলাম

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: