মৃত্যু, শেষ বিচার ও পুনরায় জীবিত হওয়া

রাসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর সময়ও এক কাফের একটি কবর থেকে কয়েকটি হাড় উঠিয়ে নিয়ে এসে মুহাম্মাদ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কে প্রশ্ন করেছিল, হে মুহাম্মাদ আমি যখন মৃত্যুর পরে এরকম হাড়গোড় হয়ে যাবো তখন আবার কিভাবে জীবিত হব ? তখন আল্লাহ সুবহানাতায়ালা ওহী নাযিল করে আল-কোরানে বলেন- “ আমি কি একবার সৃষ্টি করেই ক্লান্ত হয়ে পড়েছি যে ২য়বার সৃষ্টি করতে পারবো না, বরং আমি তোমার আংগুলের অগ্রভাগ পর্যন্ত মিলাতে সম্ভব।
ইবরাহীম (আঃ) ছিলেন আল্লাহর রাসুল। পুনরুত্থানের প্রতি বিশ্বাস রাখা সত্ত্বেও মৃত ব্যক্তির জীবিত হওয়ার ধরণ বা প্রক্রিয়া দেখিয়ে দেয়ার জন্য আল্লাহর কাছে অনুরোধ করেন। সুরা বাকারার ২৬০ নম্বর আয়াতে আল্লাহর সাথে তাঁর সংলাপের বিষয়টি উল্লেখিত হয়েছে। “যখন ইবরাহীম বলল, হে আমার প্রতিপালক আপনি কিভাবে মৃতদের জীবিত করবেন তা আমাকে দেখিয়ে দিন। এর উত্তরে শুনল, তুমি কি বিশ্বাস কর না ? উত্তরে তিনি বললেন নিশ্চয়ই (বিশ্বাস করি),কিন্তু আমি আমার মনকে প্রশান্ত করার জন্য তা দেখতে চাই। এরপর আল্লাহ বললেন, চারটি পাখি নাও এবং তাদের গোশত কেটে টুকরো টুকরো করে মিশিয়ে ফেল এরপর প্রত্যেক পাহাড়ের ওপর ওদের এক এক খণ্ড রেখে তাদের নাম ধরে ডাক, তারা তোমার কাছে দৌড়ে আসবে। জেনে রাখ যে, আল্লাহ অতুলনীয় শক্তির অধিকারী ও বিজ্ঞানময়।” (২:২৬০)
তখন আল্লাহতায়ালা এরশাদ করেন-হে ইব্রাহীম!কেয়ামতের দিন এমনিভাবে সবাইকে পুনর্জীবন দেওয়া হবে এবং হিসাব নিকাশের জন্য তার নিকট দাড় করানো হবে।
দৃশ্য-অদৃশ্য সমস্ত কিছুর বাদশাহী একমাত্র তাঁরই এবং তিনি যখন ইচ্ছা পোষণ করবেন, তখনই আদেশ দানমাত্র সৃষ্টির প্রতিটি অনু-পরমাণু তাঁর দরবারে উপস্থিত হতে বাধ্য। পবিত্র কোরআনে বলা হয়েছে- তিনিই আকাশ ও যমীনকে যথাযথভাবে সৃষ্টি করেছেন এবং যেদিন তিনি বলবেন, হাশর হও, সেদিনই হাশর হবে। তাঁর কথা সর্বাত্মকভাবে সত্য এবং যেদিন শিঙ্গায় ফুঁ দেয়া হবে, সেদিন নিরঙ্কুশ বাদশাহী তাঁরই হবে। গোপন ও প্রকাশ্য সমস্ত কিছুই তাঁর জ্ঞানের আওতায়, তিনি অত্যন্ত সুবিজ্ঞ, সম্পূর্ণ পরিজ্ঞাত। (সূরা আনআম-৭৩)
মহান আল্লাহ বলেন-
এ আকাশ ও পৃথিবী এবং এদের মধ্যে যা কিছুই রয়েছে এগুলো আমি খেলাচ্ছলে সৃষ্টি করিনি। যদি আমি কোন খেলনা সৃষ্টি করতে ইচ্ছুক হতাম এবং এমনি ধরনের কিছু আমাকে করতে হতো তাহলে নিজেরই কাছ থেকে করে নিতাম। (সূরা আম্বিয়া)
তোমরা কি মনে করেছিলে আমি তোমাদেরকে অনর্থক সৃষ্টি করেছি এবং তোমাদের কখনো আমার কাছে ফিরে আসতে হবে না ? (সূরা মু’মিনূন-১১৫)
পৃথিবী ও আকাশমন্ডলের প্রতিটি বিষয় তিনি জানেন। তোমরা যা কিছু গোপন করো আর যা কিছু প্রকাশ করো, তা সবই তিনি জানেন। তিনি মানুষের হৃদয়সমূহের অবস্থাও জানেন।আর যারা বিচার দিবসের প্রতি অবিশ্বাসী, পৃথিবীতে তাদের জীবনধারা হলো বল্গাহীন পশুর মতোই। তাদের বিশ্বাস সম্পর্কে আল্লাহ বলছেন-
আর এরা বলে, যখন আমরা মাটিতে মিশে একাকার হয়ে যাবো তখন কি আমাদের আবার নতুন করে সৃষ্টি করা হবে? (সূরা আস্ সাজ্দাহ্-১০)
অর্থাৎ এদের বিশ্বাস হলো, মৃত্যুর পরে আর কিছুই নেই। নির্দিষ্ট সময়ের পরে একদিন আমরা মৃত্যুবরণ করবো, যার যার নিয়ম অনুসারে আমাদের অন্তেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠিত হবে, আমাদের দেহ যেসব উপকরণ দিয়ে নির্মিত হয়েছিল, সেসব উপকরণ এই পৃথিবীতেই যখন বিদ্যমান রয়েছে, তখন সেসব উপকরণ পৃথিবীতেই মিশে যাবে। কারো দরবারেও আমাদেরকে দাঁড়াতে হবে না এবং আমাদের কোন কর্ম বা কথা সম্পর্কে কারো কাছে কোন জবাবদিহি করতেও হবে না। বিচার দিবসের প্রতি অবিশ্বাসীদের এই অনুভূতির কারণে পৃথিবীতে এদের কথা ও কাজের ব্যাপারে কোন নিয়ম এরা অনুসরণ করে না। তার কাজের দ্বারা ব্যক্তি বা দেশ ও জাতি কি পরিমাণ ক্ষতিগ্রস্থ হলো, এ চিন্তা এদের মনে স্থান পায় না।
আল্লাহ তা’য়ালা বলেন-
আল্লাহই বায়ু প্রেরণ করেন তারপর তা মেঘমালা উঠায় এরপর আমি তাকে নিয়ে যাই একটি জনমানবহীন এলাকার দিকে এবং মৃত-পতিত যমীনকে সঞ্জীবিত করে তুলি। মৃত মানুষদের জীবিত হয়ে ওঠাও তেমনি ধরনের হবে। (সূরা ফাতির-৯)
মৃত মানুষকে পুনরায় আল্লাহর পক্ষে জীবন দান করা কি অসম্ভব? এসব কিছু দেখার পরেও বিচার দিবস সম্পর্কে কোন সন্দেহ থাকতে পারে?
আল্লাহ তা’য়ালা বলেন-
হে মানব মন্ডলী ! যদি তোমাদের মৃত্যুর পরের জীবন সম্পর্কে কোন সন্দেহ থাকে, তাহলে তোমরা জেনে রেখো, আমি তোমাদের সৃষ্টি করেছি মাটি থেকে, তারপর শুক্র থেকে, তারপর রক্তপিন্ড থেকে, তারপর গোশ্তের টুকরা থেকে, যা আকৃতি বিশিষ্টও হয় এবং আকৃতিহীনও হয়। (এসব বর্ণনা করা হচ্ছে) তোমাদের কাছে সত্য সুস্পষ্ট করার জন্য। আমি যে শুক্রকে চাই একটি বিশেষ সময় পর্যন্ত গর্ভাশয়ে স্থিত রাখি, তারপর একটি শিশুর আকারে তোমাদের বের করে আনি, (তারপর তোমাদের প্রতিপালন করি) যেন তোমরা পূর্ণ যৌবনে পৌঁছে যাও। (সূরা হজ্জ-৫)

Compiled from Net

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: