দ্রুতির প্রবণতা

মানুষ, বিশেষ করে তরুণদের মধ্যে দ্রুতির প্রবণতা অন্তর্নিহিত। অবশ্য এটি আমাদের যুগের বৈশিষ্ট্য। এ জন্য আজ ফসল বুনে কালই তা কাটতে চায়। কিন্তু আল্লাহর সৃষ্টিরীতি অনুযায়ী এ রূপ দ্রুতির কোনো অবকাশ নেই। গাছ থেকে ফল আহরণ করতে হলে এর পর্যায়ক্রম অতিক্রম করতে দিতে হবে। মানুষের সৃষ্টি তো এর প্রকৃষ্ট নজির।
কুরআন বলছে¬ ‘অতঃপর আমি শুক্রকে পরিণত করি রক্তপিণ্ডে, তারপর রক্তপিণ্ডকে পরিণত করি মাংসপিণ্ডে, তারপর মাংসপিণ্ডকে পরিণত করি অস্থিপঞ্জরে, পরে অস্থিপঞ্জরকে মাংসে আবৃত করে দিই; অবশেষে তাকে গড়ে তুলি অন্য এক সৃষ্টিরূপে। অতএব সর্বোত্তম স্রষ্টা আল্লাহ কত মহান!’ (২৩ঃ১৪)
এমনভাবে মানুষও শিশু থেকে পর্যায়ক্রমে প্রাপ্তবয়স্কে পরিণত হয়। একইভাবে আল্লাহর সুনান অনুযায়ী মানুষের জীবনও বিভিন্ন স্তর অতিক্রম করে। কুরআন বলছে ‘নিশ্চয়ই আল্লাহ কোনো জাতির অবস্থা পরিবর্তন করেন না যতক্ষণ না তারা নিজেদের অবস্থা নিজেরা পরিবর্তন করে।’ (১৩ঃ১১) এবং ‘কারণ, আল্লাহ কোনো সম্প্রদায়কে প্রদত্ত সৌভাগ্য পরিবর্তন করেন না যতক্ষণ না তারা নিজেরাই পরিবর্তিত করে দেয় নিজের জন্য নির্ধারিত বিষয়।’ (৮ঃ৫৩)
অনুরূপভাবে আল্লাহর দীন বিভিন্ন স্তর অতিক্রম করে অবশেষে পূর্ণতাপ্রাপ্ত হয়েছে। তখন এই আয়াত নাজিল হয়েছে¬ ‘আজ তোমাদের জন্য তোমাদের দীন পূর্ণাঙ্গ করলাম, তোমাদের প্রতি আমার অনুগ্রহ সম্পূর্ণ করলাম, এই ইসলামকেই তোমাদের দীন মনোনীত করলাম।’ (৫ঃ৩)

লেখকঃ মিসরীয় বিখ্যাত পণ্ডিত ড. ইউসুফ আল কারজাভি

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: