জুমার দিনে খুতবার সময় চুপ থাকা ওয়াজিব

প্রশ্ন : জুমার দিন ইমাম সাহেব খুতবাহ দিচ্ছেন এ সময় যে কথা বলে তার হুকুম কি? যেমন কোন বন্ধু তাকে সালাম দিল অথবা তার কাছের শিশুরা কথা বলছে সে তাদের বলল “চুপ কর।”
জওয়াব : জুমার দিন চুপ করে খুতবাহ শোনা ওয়াজিব। তখন কথা- বার্তা বলা হারাম। যদিও সে কথা সৎ কাজের আদেশ সম্পর্কিত হয়, ভাল কথা হয়।
নবী করীম সাললহু আলাইহি ওয়াসালম বলেছেন :
إذا قلت لصاحبك أنصت يوم الجمعة والإمام يخطب فقد لغوت.
“জুমার দিন খুতবার সময় তুমি যদি তোমার ভাইকে বল ‘চুপকর’ তাহলে তুমিও বাজে কথা বললে।”
এমনিভাবে খুতবার সময় অনর্থক কোন কাজ করা, মেঝে সমান করা, জায়নামায সোজা করা ইত্যাদি হারাম। যেমন হাদীসে এসেছে –
من مس الحصى فقد لغا
“যে মেঝের পাথর স্পর্শ করল সে বাজে কাজ করল।” তবে ইমাম সাহেব উপস্থিত লোকদের যে কাউকে কিছু বলতে পারেন। উপস্থিত মুসল্লীদের মধ্য থেকে কেহ প্রয়োজনে ইমাম সাহেবকে সম্বোধন করে কিছু বললে তা নাজায়েয হবে না।
যদি কেহ আপনাকে ছালাম দেয় আপনি ইশারায় তার জওয়াব দিবেন। যদি ছোটদের চুপ করতে বলার প্রয়োজন হয় তা হলে মুখে কিছু না বলে তাদের ইশারায় বলবেন।
আর খুতবার সময় কথা বলা নিষেধ এটা যদি কারো জানা না থাকে আর সে যদি কথা বলে তবে সে মাফ পেয়ে যাবে। কিন্তু মাছআলা জানা থাকা সত্বেও যদি কেহ ইচ্ছা করে কথা বলে তবে সে অপরাধী। তবে তাকে সালাত পুনরায় আদায় করতে বলা হবে না।

http://prothom-aloblog.com/users/base/godhulirsurjo/

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: