দয়ার নবীর প্রশ্ন এবং ইবলিশ এর উত্তর

দয়ার নবী হুজুর পাক (সাঃ) এর সাথে ইবলিশ শয়তান এর সাক্ষাতে হুজুর পাক (সাঃ) ইবলিশকে প্রশ্ন করলে ইবলিশ তার উত্তর দেয়। জেনে নেই কি ছিল সেই প্রশ্ন এবং উত্তর।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : কোন ব্যক্তি তোমার মাথাকে ক্ষত বিক্ষত করে?
ইবলিশ শয়তান এর এর উত্তর: যে ব্যক্তি বেশী বেশী আস্তাগফার পড়ে ।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : কোন ব্যক্তি তোমার দেহকে আগুনে গলাইয়া ফেলে?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: আল্লাহর রাস্তায় কাফেরদের বিরুদ্ধে যে ব্যক্তি জেহাদে দৌড়ায় ।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : কোন ব্যক্তি তোমাকে দোররা মারে?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: কোরআন শরীফ তেলাওয়াতকারী ব্যক্তি।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : কোন ব্যক্তি তোমাকে সাত তবক জমিনের নিচে প্রবেশ করায়?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: পিতা মাতা, আম্মীয় স্বজনদের সাথে যে ভালো ব্যবহার করে।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : কোন ব্যক্তি তোমার মুখকে ছোট করে এবং তুমি তাতে অপমানিত হও?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: আজান দেনেওয়ালা ব্যক্তি।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : কোন ব্যক্তি তোমার গালে খুব জোরে থাপ্পর মারে?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: যে ব্যক্তি তার চোখকে নিচু করে রাখে।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : তোমার বুজুর্গী কোন ব্যক্তি নষ্ট করে ?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: মাপে যে ব্যক্তি ওজন ঠিক ঠিক দেয়।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : কোন ব্যক্তি তোমাকে বেশী শাস্তি দেয়?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: আল্লাহর নামে জিকিরকারী ব্যক্তি।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : আমার উম্মতের মধ্যে কাকে তুমি মহব্বতের সাথে বেছে নিয়েছ?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: মদপানকারী ব্যক্তি।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : তোমার সাথে খাদ্য ভক্ষণকারী কে?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: খাদ্য খাওয়ার সময় যে ব্যক্তি হালাল হারাম ভ্রুক্ষেপ করে না।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : তোমার সঙ্গী কে?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: যে ব্যক্তি সব সময় হারাম কাজে লিপ্ত থাকে ও নানাবিধ গল্পগুজবে লিপ্ত থাকে এবং শরীয়তের বরখেলাপ খেলাধূলা করে।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : তোমার সঙ্গে ভালো ব্যবহার কে করে?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: মিথ্যা কসম দ্বারা যে ব্যক্তি মাল সম্পদ উপার্জন করে।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : তোমার খবর সংগ্রহকারী কে এবং তোমার মত কথা বলতে পারে কে?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: চোগলখোর আমার পিয়ন। কথা বলার সময় যে ব্যক্তি মিথ্যা কথা বলাকে বেশী প্রিয় মনে করে সেই ব্যক্তি আমার মত কথা বলতে পারে।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : তোমার দোস্ত কে?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: যে ব্যক্তি জানিতে পারিল যে, নামাজের সময় হয়েছে তার পরেও সে নানা বাহানায় নামাজ দেরিতে পড়ে।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : কোন ব্যক্তি তোমাকে আরো কষ্ট দেয়?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: নামাজে প্রথম কাতারে যে ব্যাক্ত দাড়ায়।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : তুমি কোন ব্যক্তিকে বুজুর্গ বলিয়া মনে করো?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: যে ব্যক্তি অপর মুসলমানের প্রতি হিংসা ও শুত্রুতা করে।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : তোমার ঘর কোথায় ?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: গোসল করার স্থান আমার ঘর।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : তোমার বসার স্থান কোথায়?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: বাজার আমার বসার স্থান।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : তোমার আযান কোন জিনিস?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: বাদ্য বাজনা আমার আযান।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : তোমার সাহায্যকারী কোন ব্যক্তি?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: যে ব্যক্তি মানুষকে অন্যায়মূলক আদেশ করে।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : তুমি খানা খাও কোথা থেকে?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: যেখানে বেচা কেনার মধ্যে মানুষকে ধোকা দেয় এবং মাপের সময় ওজনে কম দেয় সেখান থেকে আমার খানা আসে।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : কোন আমল তোমাকে বেশী রাগান্বিত করে?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: এইবার একটা দরকারী কথা বলেছেন। ছোট বালক বালিকার নামাজ এবং রোজা আমাকে বেশী রাগান্বিত করে, যা আমার ধৈয্যের বাইরে।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : এমন কোন মেয়েলোক আছে যাদের উপর তুমি কোন শক্তি খাটাইতে পারো না?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: হযরত মরিয়ম বিনতে এমরান, হযরত আছিয়(ফেরাউনে স্ত্রী), ইসলাম গ্রহনের পর আপনার স্ত্রী হযরত খাদিজা(রাঃ) এবং আপনার মেয়ে হযরত ফাতেমা(রাঃ)। এনাদের উপর আমি কোন শক্তি খাটাইতে পারি নাই বলে আমি দুঃখিত।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : তোমার মিষ্টি শরবত কোন জিনিস?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: আর কতো কাথা জিজ্ঞেস করবেন ? নেশা জাতীয় জিনিস আমার শরবত, চোগলখুরী আমার জন্য নতুন ফল, গীবত আমার মজলিস, মিথ্যা কথা বা মিথ্যা কসম করা আমার আশা আকাঙ্খা, বাম হাতে পান করা বা খাওয়া আমার চাহিদা, লজ্জস্থান খোলা রাখা আমার অতি সৌন্দর্য, বাম পায়ে প্রথম জুতা পায় দেওয়া আমা ইচ্ছা, পশ্চিম দিকে মুখ করে বসে প্রসাব পায়খানা করা আমার খুব পছন্দনীয়, বিনা দরকারে আঙ্গুল ফোটানো আমার তসবিহ, দুই হাতে আঙ্গুলে আঙ্গুলে প্রবেশ করে দুই হাটুর মাঝখান দিয়া বসিয়া থাকা আমার খুশী, এশার ও ফজরের নামাজের সময় শুযে খাকা আমার কত শান্তি, এমনকি যে কোন হারাম মাল, হারাম মিলন আমার খুব প্রিয়। যে ব্যক্তি স্ত্রী সহবাসের সময় বিসমিল্লাহ শরীফ ও দোয়া পড়ে না, তাহার সঙ্গে আমিও শরিক থাকি আর বদকার মেয়ে আমার বেশী প্রিয়।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : মানুষের মধ্যে তোমার প্রিয় কে ?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: দ্বীন চোর, ফাছেক আলেম, অবিচারক বিচারকারী বা হাকিম ।
হুজুর পাক (সাঃ) এর প্রশ্ন : তোমার সঙ্গে বেশী শত্রুতা কে করে ?
ইবলিশ শয়তান এর উত্তর: দানশীল মেয়ে হোক বা পুরুষ হোক, পরহেজগার হাক্কানী আলেম এবং ন্যায় বিচারক। একজন পরহেজগার হাক্কানী আলেম এক হাজার আবেদের চেয়েও বেশী ভারী, একজন বদকার মেয়ে এক হাজার বদকার পুরুষের চেয়েও বেশী ভারী।

Source and gratitude http://www.shobdoneer.com/shibly/13552

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: