বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি

মানুষ পৃথিবীতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করবে না, এটাই ছিল মহান আল্লাহ তাআলার অভিপ্রায়। যারা মহান আল্লাহ তাআলার নির্দেশনা থেকে মুখ ফিরাবে এবং এর বিরুদ্ধাচারণ করবে, তাদের ধ্বংস অনিবার্য।

এ সম্পর্কে মহান আল্লাহ তাআলা বলেনঃ

“তোমরা পৃথিবীতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করবে না, নিশ্চয়ই আল্লাহ তাআলা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের পছন্দ করেন না। (সূরা কাসাস-৭৭)

“অতঃপর যখন আমার পক্ষ হতে তোমাদের নিকট সৎ পথের কোন নির্দেশ আসবে, তখন যারা আমার সৎ পথের নির্দেশ অনুসরণ করবে, তাদের কোন ভয় নেই এবং তারা দুঃখিত হবে না। আর যারা অবিশ্বাস করবে ও আমার নির্দেশকে প্রত্যাখ্যান করবে, তারাই অগ্নিবাসী সেখানে তারা চিরকাল থাকবে।” (সূরা বাকারা-৩৮-৩৯)।
“ হে মানুষ! তোমরা তোমাদের প্রতি পালককে ভয় কর। যিনি তোমাদের এক ব্যক্তি থেকে সৃষ্টি করেছেন এবং তা থেকে তার সঙ্গিনী সৃষ্টি করেন, যিনি তাদের দু’জন থেকে বহু নর-নারী (পৃথিবীতে) বিস্তার করেন। এবং আল্লাহকে ভয় কর যার নামে তোমরা একে অপরের নিকট যাচাই কর, জ্ঞাতি বন্ধন ছিন্ন করাকে ভয় কর অর্থাৎ তোমরা মানুষ হিসেবে পরস্পর ভাই ভাই। নিশ্চয়ই আল্লাহ তাআলা তোমাদের উপর তীক্ষ্ণ দৃষ্টি রাখেন।” (সূরা আন্‌-নিসা-০১)।

“(হে নবী) আপনি বলুন! ‘হে সার্বভৌম শক্তির মালিক মহান আল্লাহ! তুমি যাকে ইচ্ছা রাজ্য দান কর, এবং যার থেকে ইচ্ছা রাজ্য কেড়ে নাও, এবং যাকে ইচ্ছা সম্মানিত কর, আর যাকে ইচ্ছা অপমানিত কর। যাবতীয় কল্যাণ তোমারই হাতে। নিশ্চয়ই তুমি সকল বিষয়ে সর্বশক্তিমান। তুমি রাতকে দিনে, দিনকে রাতে পরিবর্তন কর, এবং তুমিই মৃত হতে জীবন্তের আবির্ভাব ঘটাও, আবার জীবন্ত থেকে মৃতের আবির্ভাব ঘটাও। তুমি যাকে ইচ্ছা অপরিমিত জীবিকা দান করে থাকো।” (সূরা আল-ইমরান- ২৬-২৭)।
“ তোমাদের মধ্যে যারা বিশ্বাস করে ও সৎ কাজ করে আল্লাহ তাআলা তাদের প্রতিশ্রতি দিয়েছেন যে, তিনি তাদের পৃথিবীতে প্রতিনিধিত্ব (শাসন ক্ষমতা) দান করবেনই, যেমন তিনি প্রতিনিধিত্ব দান করেছিলেন তাদের পূর্ববর্তীদের এবং তিনি অবশ্যই তাদের জন্য তাদের ধর্মকে, যা তিনি তাদের জন্য মনোনীত করেছেন, সুদৃঢ় করবেন এবং তাদের ভয়-ভীতির পরিবর্তে তাদের নিরাপত্তা দান করবেনই। তারা আমার ইবাদত করবে, আমার কোন অংশী করবে না, অতঃপর যারা অকৃতজ্ঞ হবে তারাই সত্য ত্যাগী। যথাযথভাবে নামাজ আদায় কর, যাকাত দাও (দান কর) এবং রাসূলের অনুগত্য কর, যাতে তোমরা অনুগ্রহ ভাজন হতে পার। তোমরা অবিশ্বাসীদের পৃথিবীতে প্রবল মনে করো না। ওদের আশ্রয়স্থল অগ্নি; কতই না নিকৃষ্ট এ পরিণাম।(সূরানূর-৫৫-৫৭)

মাওলানা মোহাম্মদ লুৎফর রহমান ইবনে ইউসুফ

মুল লেখা থেকে কিছুটা সংক্ষিপ্তকারে

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: