আসমাউল হুসনা বা আল্লাহতাআলার গুণবাচক নামসমূহের বাংলা অর্থ

Permission taken from Source : http://prothom-aloblog.com/users/base/talhatitumir/

আল্লাহ বলে আহ্‌বান কর কিংবা রাহামান বলে, যে নামেই ডাক না কেন, সব সুন্দর নাম তাঁরই । (বনী-ইসরাইল– ১১০)

আর আল্লাহর জন্যে রয়েছে সব উত্তম নাম। কাজেই সেসব নাম ধরেই তাঁকে ডাক। (আল-আরাফ-১৮০)

নিচে আল্লাহতাআলার গুণবাচক নামসমূহের বাংলা অর্থ দেয়া হলো। সাথে কোন্ সুরার কোন্ আয়াতে আছে তাও দেয়া হলো।

আরবী নাম ——বাংলা অর্থ ——কোন্ সুরায় আছে
১। আর-রাহমান— (পরম করুণাময়) — (২ : ১৬৩)
২। আর-রাহীম— (অফুরন্ত দাতা / অতি দয়ালু) — (৫৭ : ৯)
৩। আল-মালিক— (রাজাধিরাজ) — (২৩ : ১১৬)
৪। আল-কুদ্দুস— (সমস্ত সন্দেহ-সংশয় মুক্ত সত্তা) — (৬২ : ১)
৫। আস-সালাম— (প্রশান্তিদাতা) — (৫৯ : ২৩)
৬। আল-মুমিন— (নিরাপত্তাদাতা) — (৫৯ : ২৩)
৭। আল-মুহাইমিন— (অভিভাবক) — (৫৯ : ২৩)
৮। আল-আযীয— (প্রবল পরাক্রমশালী) — (৩ : ৬)
৯। আল-জাব্বার— (সবচেয়ে মহান ও ক্ষমতাশালী) — (৫৯ : ২৩)
১০। আল-মুতাকাব্বির— (মহত্বের অধিকারী) — (৫৯ : ২৩)
১১। আল-খালিক— (সৃষ্টিকর্তা) — (১৩ : ১৬)
১২। আল-বারী— (প্রাণদাতা) — (৫৯ : ২৪)
১৩। আল-মুসাউয়ির— (আকৃতি দানকারী) — (৫৯ : ২৪)
১৪। আল-গাফ্ফার— (ক্ষমাশীল) — (২০ : ৮২)
১৫। আল-কাহ্‌হার— (মহা শাস্তিদানকারী) — ( ১৩ : ১৬)
১৬। আল-ওয়াহাব— (অত্যন্ত দাতা) — (৩৮ : ৯)
১৭। আর-রায্‌যাক— (রিযিকদাতা) — (৫১ : ৫৮)
১৮। আল-ফাত্‌তাহ— (বিজয় দানকারী) — (৩৪ : ২৬)
১৯। আল-আলীম— (সর্বজ্ঞ) — (৪ : ৩৫)
২০। আল-কাবীদ— (রিযিক সংকীর্ণকারী) — (২ : ২৪৫)
২১। আল-বাসিত— (রিযিক প্রশস্তকারী) — (২ : ২৪৫)
২২। আল-খাফিদ— (অবনতকারী) — (৯৫ : ৫)
২৩। আর-রাফি— (উন্নতি প্রদানকারী) — (৫৮ : ১১)
২৪। আল-মু্য়িজ— (সম্মানদাতা) — (৩ : ২৬)
২৫। আল-মুধীল— (অপমানদাতা) — (৩ : ২৬)
২৬। আস-সামী— (সর্বশ্রোতা) — (২ : ২৫৬)
২৭। আল-বাসীর— (সর্বদ্রষ্টা) — (৪২ : ১১)
২৮। আল-হাকাম— (বিচারক) — (২২ : ৬৯)
২৯। আল-আদল— (ন্যায়বিচারক) — (৬ : ১১৫)
৩০। আল-লাতিফ— (অতি অনুগ্রহশীল) — (২২ : ৬৩)
৩১। আল-খাবির— (সর্ববিষয়ে জ্ঞানী) — (৬ : ১৮)
৩২। আল-হালিম— (মহা ধৈর্যশীল) — (২২ : ৫৯)
৩৩। আল-আযীম— (অতি মহান) — (২ : ২৫৫)
৩৪। আল-গাফুর— (অত্যন্ত ক্ষমাশীল) — (২ : ১৭৩)
৩৫। আশ-শাকুর— (ভালো কাজের পুরষ্কারদানকারী / গুণগ্রাহী) — (৩৫: ৩০)
৩৬। আল-আলী— (সর্বোচ্চ) — (৪ : ৩৪)
৩৭। আল-কাবির— (সর্বোচ্চ মর্যাদাবান) — (২২ : ৬২)
৩৮। আল-হাফীয— (সবকিছুর সংরক্ষক) — (১১ : ৫৭)
৩৯। আল-মুকীত— (অন্ন ও শক্তিদাতা) — (৪ : ৮৫)
৪০। আল-হাসিব— (হিসাব গ্রহণকারী) — (৩৩ : ৩৯)
৪১। আল-জালীল— (অতি মর্যাদাবান) — (৫৫ : ২৭)
৪২। আল-কারীম— (অনুগ্রহকারী) — (২৭ : ৪০)
৪৩। আর-রাকীব— (তত্ত্বাবধায়ক) — (৫ : ১১৭)
৪৪। আল-মুজিব— (দুআ কবুলকারী) — (১১ : ৬১)
৪৫। আল-ওয়াসি— (অসীম) — (২ : ২৬৮)
৪৬। আল-হাকীম— (প্রজ্ঞার অধিকারী) — (৩১ : ২৭)
৪৭। আল-ওয়াদুদ— (ভালবাসা পোষণকারী) — (১১ : ৯০)
৪৮। আল-মাজীদ— (মহত্বের অধিকারী) — (১১ : ৭৩)
৪৯। আল-বায়িত— (পুনরুত্থানকারী) — (২২ : ৭)
৫০। আশ-শাহীদ— (সর্বত্র বিদ্যমান/সাক্ষী) — (৪ : ১৬৬)
৫১। আল-হাক্ব— (হক ও চিরসত্য) — (২৩ : ১১৬)
৫২। আল-ওয়াকীল— (মহাব্যবস্থাপক) — (৩৩ : ৩)
৫৩। আল-ক্বাবিয়্যু— (মহাশক্তিধর) — (২২ : ৭৪)
৫৪। আল-মাতিন— (অটল / অনড়) — (৫১ : ৫৮)
৫৫। আল-ওয়ালিয়্যু— (বন্ধু ও সাহায্যকারী) — (৪ : ৪৫)
৫৬। আল-হামিদ— (প্রশংসিত) — (১৪ : ৮)
৫৭। আল-মুহসি— (যার জ্ঞান সবকিছুকে বেষ্টন করে আছে) —(৭২ : ২৮)
৫৮। আল-মুবদি— (সৃষ্টির সূচনাকারী) — (২৭ : ৬৪)
৫৯। আল-মুয়িদ— (পুনরুজ্জীবিতকারী)— (২৭ : ৬৪)
৬০। আল-মুহ্‌য়ি— (জীবনদাতা) — (১৫ : ২৩)
৬১। আল-মুমিত— (মৃত্যুদাতা) — (৭ : ১৫৮)
৬২। আল-হাই— (চিরন্জীব) — (২ : ২৫৫)
৬৩। আল-কাইয়ুম— (অমুখাপেক্ষী / সবকিছুর ধারক) — (২ : ২৫৫)
৬৪। আল-ওয়াজিদ— (অব্যর্থ) — (১৬ : ৪৫ থেকে ৪৬)
৬৫। আল-মাজীদ— (মহিমাময়) — (১১ : ৭৩)
৬৬। আল-ওয়াহিদ— (এক ও অদ্বিতীয়) — (২ : ১৬৩)
৬৭। আল-আহাদ— (এক) — (১১২ : ১)
৬৮। আস-সামাদ— (অভাবমুক্ত) — (১১২ : ২)
৬৯। আল-কাদির— (সবকিছু করতে সক্ষম / সর্বশক্তিমান) — (৬ : ৬৫)
৭০। আল-মুক্‌তাদির— (সকল ক্ষমতার উৎস) — (১৮ : ৪৫ থেকে ৪৬)
৭১। আল-মুকাদ্দিম— (অগ্রবর্তিকারী) — (১৭ : ৩৪)
৭২। আল-মুয়াখখির— (পশ্চাৎবর্তিকারী) — ( ৭১ : ৪)
৭৩। আল-আউয়াল— (সর্বপ্রথম) — (৫৭ : ৩)
৭৪। আল-আখির— (অনন্ত / সর্বশেষ) — (৫৭ : ৩)
৭৫। আয-যাহীর— (প্রকাশমান) — (৫৭ : ৩)
৭৬। আল-বাতিন— (অদৃশ্য / গুপ্ত) — (৫৭ : ৩)
৭৭। আল-ওয়ালী— (তত্তাবধায়ক) — (১৩ : ১১)
৭৮। আল-মুতাআলি— (সর্বোচ্চ মর্যাদাবান) — (১৩ : ৮ থেকে ১০)
৭৯। আল-বার্‌রু— (পরম উপকারী) — (৫২ : ২৮)
৮০। আত-তাওয়াব– (তওবা কবুলকারী) — (৯ : ১০৪)
৮১। আল-মুনতাকীম— (অপরাধীর শাস্তি দানকরী) — (৩২ : ২২)
৮২। আল-আফুউ— (মার্জনাকারী) — (৪ : ৯৯)
৮৩। আর-রাউফ— (অত্যন্ত দয়ালু) — (৩ : ৩০)
৮৪। মালিক-উল-মুলক— (সকল সার্বভৌম শক্তির অধিকারী) — (৩ : ২৬)
৮৫। যুলজালালি-ওয়াল-ইকরাম— (মহিমাময় ও মহানুভব) — (৫৫ : ২৭)
৮৬। আল-মুকসিত— (সুবিচারকারী) — (৭ : ২৯)
৮৭। আল-জামী— (একত্রিতকারী) — (৩ : ৯)
৮৮। আল-গানী— (ধনী / অমুখাপেক্ষী) — (৩ : ৯৭)
৮৯। আল-মুগনী— (ধন দানকারী / অভাবমুক্তকারী) — (৯: ২৮)
৯০। আল-মানীই— (বারণকারী / হারাম থেকে নিষেধকারী) — (৫ : ২৪ থেকে ২৬)
৯১। আদ-দার্‌রু— (অপকার করার মালিক) — (৬ : ১৭)
৯২। আন-নাফী— (উপকার করার মালিক) — (৩০ : ৩৭)
৯৩। আন-নূর— (নূর দানকারী) — (২৪: ৩৫)
৯৪। আল-হাদী— (পথপ্রদর্শক) — (২৫ : ৩১)
৯৫। আল-বাদীই— (বিনা নমুনাতে সৃষ্টির অধিকারী) — (২ : ১১৭)
৯৬। আল-বাকী— (চিরস্থায়ী) — (৫৫ : ২৭)
৯৭। আল-ওয়ারিস— (সকলকিছুর উত্তরাধিকারী) — (১৫ : ২৩)
৯৮। আর-রাশিদ— (সৎপথ প্রদর্শনকারী) — (১৮ : ১৭)
৯৯। আস-সাবুর— (ধৈর্যশীল ও সহিষ্ণু) — (৩৫ : ৪৫)

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: