অমুসলিমের সাথে বিবাহ [ইসলামের দৃষ্টিতে]

Permission taken from Source  http://harisur.blogspot.com

বিবাহর ক্ষেত্রে অমুসলিমগন দুইভাগে বিভক্ত। আহলে কিতাব এবং আহলে কিতাব নয়। আসমানীকিতাব অনুসারীগন ‘আহলে কিতাব’ হিসেবে গন্য। যেমন ইয়াহুদী ও খ্রিস্টান। কুরআন শরীফে এই দুই সম্প্রদায়কে ‘আহলে কিতাব’ নামে আখ্যায়িত করা হয়েছে।(সূরা আন’আম,৬/১৫৬)
মহান আল্লাহ্‌ মুসলিম পুরুষদেরকে কেবল ‘আহলে কিতাব’ নারী বিবাহ করার অনুমতি প্রদান করেছেন। কুরআন মজীদে ইরশাদ হয়েছেঃ
এবং তোমাদের পূর্বে যাদেরকে কিতাব দেওয়া হয়েছে তাদের সচ্চরিত্রা নারী তোমাদের জন্য বৈধ করা হল। (সূরা মায়িদা,৫/৫)
কোন মুসলিম নারীর কোন ‘আহলে কিতাব’ পুরুষের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়া নম্পূর্ণ হারাম। মুসলমানদের জন্য আহলে কিতাব নারী বিবাহ করা বৈধ হলেও স্থান-কাল-পাত্রভেদে তা অপছন্দনীয় বলে ফকীহ্‌গন মত প্রকাশ করেছেন।
যারা আহলে কিতাব নয় তারা মুশরিক এবং কাফির তা যে ধর্মেরই অনুসারী হক। এই পর্যায়ে হিন্দু, বৌদ্ধ, জৈন, নাস্তিক, অগ্নিউপাসক সকলেই এক পর্যায়ভুক্ত। কাদিয়ানীরা মুশরিক না হলেও মুসলিম উম্মাহ্‌র ঐকমত্য অনুযায়ী কাফির। তাদের সাথে মুসলিম নারী-পুরুষের বৈবাহিক সম্পর্ক স্থাপন আল্লাহ্‌ তা’আলা চিরতরে, সর্বতোভাবে ও সম্পূর্ণভাবে নিসিদ্ধ করেছেন। কুরআন মজীদে ইরশাদ হয়েছেঃ

মুশরিক নারীরা ঈমান না আনা পর্যন্ত তোমরা তাদেরকে বিবাহ করবে না। মুশরিক নারী তোমাদের মুগদ্ধ করলেও নিশ্চয়ই মু’মিন ক্রীতদাসী তার চেয়ে উত্তম। মুশরিক পুরুষরা ঈমান না আনা পর্যন্ত তাদের সাথে তোমরা(তোমাদের নারীদের) বিবাহ দিবে না। মুশরিক পুরুষ তোমাদের মুগ্ধ করলেও, নিশ্চয় মু’মিন ক্রীতদাস তার চেয়ে উত্তম। (সূরা বাকারা,২/২২১)

2 responses to this post.

  1. মুশরিকরা কি আল্লাহর সৃষ্টি নয়? তাহলে কেন এত বিভেদ। জন্ম তো আল্লাহ্‌র নির্দেশেই হয়। এখানে তবে মুশরিকের ঘরে জন্ম নেয়াটা কার দোষ?
    উত্তর খুঁজে পেলে … comment করেন।

    Reply

    • Posted by imti24 on June 13, 2011 at 6:58 am

      দোষ কারো নয়। মুসলিম ঘরে জন্ম নিয়ে যেমন আমরা সবাই ভালো মুসলিম না তেমনি কাফের ঘরে জন্ম নিয়েও অনেকে ইসলাম গ্রহন করে উচ্চ স্ত্রে পৌছে গেছেন এমন নজীরও অনেক। আল্লাহকে মানতে চাইলে তাঁর হুকুম মানতে হবে। যেই হুকুমটা আপনার আমার কাছে অন্যরকম মনে হবে, বুঝতে হবে যে সেটার ব্যাখ্যা আমরা জানি না বা বোঝার মত ক্ষমতা আমাদের এখনও হয় নি। কিন্তু আল্লাহর বিধান অস্বীকার করার কোন উপায় নেই। তিনি সর্বর্শ্রেষ্ট।

      Reply

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: