মাহে রমজান উপলক্ষ্যে .. .. এক

Permission taken from Source  http://prothom-aloblog.com/users/base/tasnima/

পবিত্র মাহে রমজানের শুভেচ্ছা সবাইকে। এ মাসে বেশি বেশি করে ইসলামী জ্ঞার্নাজনের জন্য বলা হয়। কারণ, এ মাসে শয়তানকে বেঁধে রাখা হয়, জাহান্নামের দরজা বন্ধ করে দেয়া হয় । ফলশ্রুতিতে মানুষ নফসকে দমন করে আল্লাহর ইবাদতে অধিক মনোযোগী হতে পারে। আর অন্যদিকে জান্নাতের দরজা খুলে দেয়া হয় যার ফলশ্রুতিতে মানুষের নেক আমলের প্রতি আগ্রহ আরো বৃদ্ধি পায়। এ মাসে জ্ঞার্নাজন করে তা অনুযায়ী আমল করা আরম্ভ করলে তাই আশা করা যায় পরর্বতী সময়েও সে আমল আমরা অব্যাহত রাখতে পারবো ইনশাআল্লাহ।

আল্লাহ আমাদের জ্ঞার্নাজনের ও তদনুযায়ী আমল করার তৌফিক দিন। আমিন।

হযরত আনাস ইবনে মালেক (রা) কর্তৃক র্বণিত, তিনি বলেন, হযরত নবী করীম (সা) বলেছেন, তোমরা যখন আল্লাহর কাছে দো’আ করবে, তখন দৃঢ়সংকল্প হয়ে র্দ্ব্যথহীন ভাষায় দো’আ করবে। তোমাদের কেউ এমন কথা বলবে না- হে আল্লাহ! তুমি যদি চাও তাহলে আমাকে দান কর। কেননা, আল্লাহকে বাধ্য করতে পারে এমন কেউ নেই। (সহীহ বোখারী শরীফ-৩৯৬৩)

হযরত আবু হোরায়রা (রা) হযরত নবী করীম (সা) থেকে র্বণনা করেন, তিনি বলেছেন, দো’আর সময় তোমাদের কেউ যেন এভাবে না বলে, হে আল্লাহ! তুমি যদি চাও আমাকে তুমি মাফ করে দাও, তুমি যদি চাও আমার উপর রহমত র্বষণ কর, তুমি যদি চাও আমাকে রিযিক দান কর। বরং তার উচিত দৃঢ়তাসহকারে র্দ্ব্যথহীনভাবে র্প্রাথনা করা। কেননা মহান আল্লাহ যা ইচ্ছা তাই করেন, তাকে বাধ্য করতে পারে এমন কেউ নেই। (সহীহ বোখারী শরীফ-৩৯৬৪)
তাই আমরা যেন র্শতহীনভাবে আল্লাহর অনুগ্রহ লাভের আশায় তাঁর দরবারে হাত তুলি।

হযরত সাফওয়ান (রা) র্কতৃক র্বণিত, তিনি বলেন, এক ব্যক্তি হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে ওমর (রা)-কে জিজ্ঞেস করলেন, আল্লাহর সাথে তার ঈমানদার বান্দাদের র্নিজনে কথার্বাতা সর্ম্পকে আপনি হযরত নবী করীম (সা)-কে কিছু বলতে শুনেছেন কি? তিনি বললেন, তোমাদের কেউ তার রবের কাছে গেলে তিনি তার উপর র্পদা দিয়ে জিজ্ঞেস করবেন, হে বান্দা! এসব কাজ কি তুমি করেছ? সে বলবে, হ্যা করেছি। আল্লাহতাআলা আবার জিজ্ঞেস করবেন। তুমি কি একাজ একাজ করেছ? সে বলবে, হ্যা। মহান আল্লাহ এভঅবে তার কাছ থেকে স্বীকৃতি আদায় করবেন।তারপর বলবেন, আমি দুনিয়ায় তোমার এসব কাজ গোপন রেখেছিলাম।আজ আমি তা ক্ষমা করে দিলাম। (সহীহ বোখারী শরীফ-৩৯৭৮)

এ হাদীস থেকে আমরা জানতে পারি, গোনাহের কথা প্রচার করে বেড়ানো উচিত নয়। যে গোনাহের কথা অন্য মানুষ জানে না, তা নিজ র্পযন্তই রাখা উচিত। তাহলেই আল্লাহর রহমতে কেয়ামতের দিন এসকল গোনাহের জন্য ক্ষমা পাওয়া যাবে।

হযরত আবু হোরায়রা (রা) থেকে র্বণিত, তিনি বলেন, আমি হযরত নবী করীম (সা) কে বলতে শুনেছি, আল্লাহতাআলা মাখলুক সৃষ্টির র্পূবেই একটি দলিল রচনা করেছেন। তাতে লেখা আছে- আমার দয়া করুণা আমার অভিমান ও ক্রোধের উপর প্রাধান্য লাভ করেছে। এ বাক্য আল্লাহর কাছে তাঁর আরশের উপর লেখা রয়েছে। (সহীহ বোখারী শরীফ-৩৯৯৬)

সুতরাং এ রমজান মাসে আমরা যেন বেশি বেশি করে আল্লাহর দয়া করুণা লাভ করতে পারি আর আল্লাহর অভিমান ও ক্রোধ থেকে বেঁচে থাকতে পারি- সেই চেষ্টাই করি। আল্লাহ আমাদের সেই তৌফিক দিন। আমিন।

হযরত আবু হোরায়রা (রা) র্কতৃক র্বণিত তিনি বলেন, হযরত নবী করীম (সা) বলেছেন। একদা আল্লাহর নবী হযরত আইউব (আ) গোসল করছিলেন। একদল র্স্বণের পঙ্গপাল (ফড়িং) তাঁর শরীরের উপর পড়তে শুরু করলে তিনি তা ধরে ধরে তাঁর কাপড়ে ভরতে শুরু করলেন। দেখে তাঁর রব (আল্লাহ তাআ’লা) তাঁকে ডেকে বললেন, হে আইউব! তুমি যা দেখছ, সে জিনিসের তোমাকে অভাবশূন্য করি নাই? তকণ । আইউব (আ) বললেন, হ্যা! হে আল্লাহ! কিন্তু তোমার বরকত লাভের ব্যাপারে আমি অভাবশূন্য নই। (সহীহ বোখারী শরীফ-৩৯৬৭)

যেখানে আল্লাহর একজন নবী- মানবজাতির মধ্যে যাদেরকে তিনি সর্বাপেক্ষা অধিক অনুগ্রহ করেছেন – তাদের অন্যতম, তাঁর মনোনীত পথপ্রর্দশকই তাঁর বরকত, তাঁর রহমত লাভ থেকে নিজেকে বিরত রাখতে, নিজেকে বঞ্চিত করতে চাননি, সেখানে আমরা কিভাবে নিজেদের আল্লাহসুবহানাহুতাআ’লার রহমত বরকত অনুগ্রহ লাভের সুর্বণ সুযোগ মাহে রমজানের প্রথম দশদিন থেকে বিমুখ রাখতে পারি? আমরা এ সুযোগ যাতে উত্তম থেকে উত্তম উপায়ে নিজেদের মনোবাসনা র্পূণ করার জন্য, নিজেদের রিযিকে বরকত লাভের জন্য ব্যবহার করতে পারি- সেই চেষ্টায় রত থাকি।
আল্লাহ আমাদের সকলের প্রতি তাঁর অনুগ্রহের হাত বাড়িয়ে দিন। আমিন।

সূত্র: সহীহ বোখারী শরীফ

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: