আপনাদের সবার কাছে একটি অনুরোধ

আমরা যারা ব্লগে আছি তাদের সবাই কম-বেশি শিক্ষিত এবং মাশাল্লাহ সবাই পড়তে পারি। আমাদের মাঝেই অনেকে দেশী-বিদেশী নামকরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ডিগ্রী নিয়েছি এবং সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত । এ পর্যন্ত আসতে আমাদের প্রচুর পড়ালেখা করতে হয়েছে, বই পড়তে হয়েছে,যেগুলোর বেশীরভাগই ছিলো বৃহত কলেবরের। আবার বই পড়ার যাদের শখ ছিলো তাঁরা রবীন্দ্র-নজরুল-শরত-টলস্টয়-শেক্সপীয়র-জুলভার্ন-হুমায়ূন-মানিক-সুনীল-সমরেশ-ধর্ম-দর্শন-বিজ্ঞান সহ বভিন্ন বিষয়ের বিভিন্ন ভাষার হাজারো বই পড়েছি। সন্দেহ নেই এসব বই আমাদেরকে উন্নতির পথে নিয়ে যেতে এবং মননশীল মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে অসাধারণ অবদান রেখেছে। কিন্তু আমরা কি কখনো ভেবে দেখেছি, আমাদের সৃষ্টিকর্তা আল্লাহ তাঁর রচিত গ্রন্থ কোরআনে কি বলতে চেয়েছেন ? ঘরের সবচেয়ে পবিত্রতম স্থানে কোরআন যত্ন করে রেখে দিলেই এর হক আদায় করা হয় না। আমাদের কাছে কোরানের হক হলো আমরা যেন কোরআন পড়ি, বুঝি এবং মেনে চলি। আমরা যারা শিক্ষিত আছি তাদের অন্তত কোরআন বুঝে তেলওয়াত করা উচিত যাতে অন্যদের কাছে কোরানের শিক্ষা পৌছাতে পারি। অনেকের ধারণা কোরআন শুধুমাত্র আরবী জানা লোকদের জন্যে কিংবা মাদ্রাসা ছাত্রদের জন্য, এর ভেতরে কি আছে আমাদের না জানলেও চলবে। এ ধারণা সম্পূর্ণ ভূল। সকলের অনুধাবনের জন্যেই এই কোরান। আল্লাহতাআলা এ জন্যই ইরশাদ করেছেন-
” এটি একটি বরকতময় কিতাব, যা আমি আপনার প্রতি বরকত হিসেবে অবতীর্ণ করেছি, যাতে মানুষ এর আয়াতসমূহ লক্ষ্য করে এবং বুদ্ধিমানগণ যেন তা অনুধাবন করে। ” [ সুরা ছোয়াদ-২৯]

আল্লাহ রাব্বুল আলামীন আরো বলেছেন-
” তারা কি কোরআন সম্পর্কে গভীর চিন্তা করে না ? না তাদের অন্তর তালাবদ্ধ ? ” [সুরা মুহাম্মদ-২৪]

সন্দেহপোষণকারীদের প্রতিও আল্লাহ কোরআনের দিকে আহ্বান করেছেন এই বলে –
” এরা কি লক্ষ্য করে না কোরআনের প্রতি ? পক্ষান্তরে এটা যদি আল্লাহ ব্যাতীত অপর কারও পক্ষ থেকে হতো, তবে এতে তারা অবশ্যই প্রচুর গরমিল পেতো। ” [সুরা নিসা-৮২]

তাছাড়া সাহিত্যকীর্তি হিসেবেও কোরআন একটি মাস্টারপীস । আর বিজ্ঞানীদের জন্যও এতে রয়েছে অসংখ্য তথ্য। তাই আসুন কোরআন তেলাওয়াতের সাথে সাথে কোরানের অনুবাদও পড়ি। বাংলা ভাষায় এখন অসংখ্য অনুবাদ বের হয়েছে, বেছে নেয়ার দায়িত্ব আপনার। পবিত্র রমযান মাস থেকেই শুরু করা যাক, যেন মৃত্যুর পূর্বে কখনো আফসোস না হয়- আল্লাহতাআলা কোরআনে কি বলেছেন জানা হলো না !!

মহানবী মুহাম্মদ [স:] এর হাদীস দিয়ে শেষ করছি –
” তোমাদের মধ্যে কেউ যদি আল্লাহর সাথে কথা বলতে চায়, তবে সে যেন বেশী বেশী কোরআন পড়ে। “

Permission taken from Source : http://prothom-aloblog.com/users/base/talhatitumir/ তালহা তিতুমীর

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: